স্মার্ট কার্ড প্রকল্পের মেয়াদ ১ বছর বাড়ল

smart_nid_file-photo_Samakal-5a2811e41c264

আগামী এক বছরের মধ্যেই সব ভোটারের হাতে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র (স্মার্ট কার্ড) পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে চলমান আইডেন্টিফিকেশন সিস্টেম ফর ইনহ্যান্স একসেস টু সার্ভিসেস (আইডিইএ) প্রকল্পটির মেয়াদ আগামী ডিসেম্বর শেষ হচ্ছে। বিশ্বব্যাংক এর মেয়াদ বাড়াতে রাজি নয়। কিন্তু সরকারি অর্থায়নে এক বছর সময় বাড়ানো হচ্ছে।

ইসি কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে প্রকল্পটির পরিচালক ও এনআইডির ডিজি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে চলতি মাসেই চুক্তি শেষ হচ্ছে। এরইমধ্যে সরকার এক বছর মেয়াদ বাড়াতে সম্মত হয়েছে।’

সরকারি তরফে অর্থায়নের আশ্বাস পেয়ে নতুন উদ্যমে কাজ শুরু করেছে ইসি। এরই অংশ হিসেবে স্মার্ট কার্ড উৎপাদন ও বিতরণের ওপর জোর দিয়েছে ইসির জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনু বিভাগ। বর্তমানে ৩৭টি জেলায় স্মার্ট কার্ড বিতরণ চলছে।

এর আগে বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে ৯ কোটি ভোটারকে স্মার্টকার্ড দেওয়ার চুক্তি ছিল; যা ফ্রান্সের অবারর্থু টেকনোলজির ব্যর্থতায় দিতে পারেনি ইসি। ফরাসি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি বাতিলের পর নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় স্মার্ট কার্ড উৎপাদন চলছে।

এনআইডির ডিজি জানান, প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানোয় সরকারের আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে না। বরং বিভিন্নভাবে এ প্রকল্পে ৪০১ কোটি টাকা সাশ্রয় হয়েছে। সরকার প্রকল্পটিকে টিকিয়ে রাখতে টাকা খরচ ও মেয়াদ বৃদ্ধির সম্মতি দেওয়ায় অনেক জটিলতার অবসান হতে যাচ্ছে।

২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ১০ কোটি ৬০ লাখ ভোটার স্মার্ট কার্ড পাবেন বলে জানান তিনি।

Pin It