ব্যর্থ রাজনীতি থেকে শিক্ষা নিয়ে নির্বাচনে আসবে বিএনপি: তোফায়েল

ব্যর্থ রাজনীতি থেকে শিক্ষা নিয়ে বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবে বলে মন্তব্য করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

004-5a214bed0436d

তিনি বলেন, ‘এছাড়া বিএনপির আর কোনো উপায় নেই। বিএনপিকে যদি ক্ষমতায় আসতে হয়, তাহলে এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে আসতে হবে। আমরা সবদলের অংশ গ্রহণে অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু একটি নির্বাচন চাই।’

শুক্রবার দুপুরে নগরের হালিশহর আবাহনী মাঠে মাসব্যাপী বাণিজ্য ও রপ্তানি মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

মেলাটি আয়োজন করে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (সিএমসিসিআই)।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘কেউ যদি নির্বাচনে না আসে তাতে আমাদের করার কিছু নেই। ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি, বিএনপির এই নির্বাচনে আসা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই। নির্বাচনে না এসে তারা অনেক কিছু করার চেষ্টা করবে। ২০১৩ সালে চেষ্টা করেছিল। সফল হয় নাই, ব্যর্থ হয়েছে। ২০১৪ সালে নির্বাচন বানচাল করার চেষ্টা করেছে। সফল হয় নাই। ২০১৫ সালে ৯০ দিনের মতো হরতাল অবরোধের মধ্য দিয়ে অর্থনীতিকে ধ্বংস করার চেষ্টাও সফল হয় নাই। তাই আমরা আশা করছি, বিএনপি তাদের এই ব্যর্থ রাজনীতি থেকে শিক্ষা নিয়ে আগামী নির্বাচনে আসবে।’

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের মেয়াদ ২০১৯ সালের ২৯ জানুয়ারি পর্যন্ত। তার আগে ৯০ দিনের যে কোনো দিন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচন হবে সংবিধান অনুসারে। ক্ষমতাসীন দলের অধীনে। সেই নির্বাচন পরিচালনা করবে নির্বাচন কমিশন। ক্ষমতাসীন দল শুধু দৈনন্দিন কাজ করবে। তারা অন্তর্বর্তী সরকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে। এর বাইরে সহায়ক সরকার বলে কিছু নেই। তত্ত্বাবধায়ক সরকার আর পৃথিবীর আলো দেখবে না।’

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে বিতাড়িত হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। আর্তমানবতার মন নিয়ে আমরা তাদের আশ্রয় দিয়েছি। যার কারণে আজকে প্রধানমন্ত্রী বিশ্বে একজন সম্মানিত নেতা হিসেবে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছেন। তাকে মাদার অব হিউম্যানিটি বলা হচ্ছে। স্টার অব দি ইস্ট বলে আখ্যায়িত করা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনা যেখানে আন্তর্জাতিক মহলে প্রশংসিত হচ্ছেন, সেখানে আমাদের দেশের একটি রাজনৈতিক দল, যার প্রধান খালেদা জিয়া, তিনি আমাদের এই উদ্যোগের সমালোচনা করেন।  আমরা অবাক হয়ে যায়। যারা সত্যকে সত্য বলে দেখতে পারে না। একটা ভালো উদ্যোগকেও তারা খাটো করে দেখে।’

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী দেশের বাণিজ্য খাতের বিভিন্ন সফলতার কথা তুলে ধরেন।

সিএমসিসিআইর সভাপতি খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য ডা. আফসারুল আমিন, সামশুল হক চৌধুরী, স্থানীয় কাউন্সিলর এরশাদ উল্লাহ।

উপস্থিত ছিলেন সিএমসিসিআইর সহ সভাপতি এ এম মাহবুব চৌধুরী, এম এ মালেক ও মো. আবদুস ছালাম, পরিচালক ড. মহিসন জিল্লুর করিম, অধ্যাপক জাহাঙ্গীর চৌধুরী, আবু সাঈদ চৌধুরী, লোকমান হাকিম, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, ডব্লিউ আর আই মাহমুদ রাসেল, মোহাম্মদ মহসিন ও সুলতানা শিরিন আক্তার। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মেলা আয়োজন কমিটির আহ্বায়ক মোহাম্মদ আমিনুজ্জামান ভূঁইয়া।

Pin It