প্রতি পাঁচজনে একজন আমেরিকান বাংলাদেশি জিনস পরেন

যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি পাঁচজনের মধ্যে একজন বাংলাদেশের তৈরি ডেনিম জিনস ব্যবহার করে। আর ইউরোপীয়দের মধ্যে প্রতি তিনজনে একজন বাংলাদেশের তৈরি টি-শার্ট ব্যবহার করে।

416665cd37fdc2026fff2666fa5c754e-5a203324eabc8

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল গার্মেন্টস অ্যান্ড টেক্সটাইল মেশিনারি এক্সপোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানানো হয়।

এক্সপো উদ্বোধন করেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম পোশাক রপ্তানিকারক দেশ। ইউরোপীয় ইউনিয়নে ডেনিম কাপড় রপ্তানিতে শীর্ষে এবং নিটওয়্যার পোশাক রপ্তানিতে বিশ্বে দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ। কিন্তু এই খাত নিয়ে বহু চক্রান্ত হয়েছে। সেসব বাধা অতিক্রম করে বাংলাদেশ প্রথম হওয়ার পথে এগিয়ে যাচ্ছে। বস্ত্র ও পোশাক খাতের এই অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে প্রয়োজন যুগোপযোগী মেশিনারি, প্রয়োজনীয় কাঁচামাল, সুতা, কাপড় ও কেমিক্যালের গুণগত মান বজায় রাখা। এ ধরনের এক্সপো আমাদের দেশীয় প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারকদের সঙ্গে ক্রেতাদের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক স্থাপনে সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে।’

বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শক্তিশালী নেতৃত্বে বাংলাদেশ ২০২১ সালের মধ্যে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার লক্ষ্য স্থির করেছে। একই সঙ্গে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে বাংলাদেশ সরকার রপ্তানি হতে ৬০ বিলিয়ন ডলার অর্জনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে। এই লক্ষ্যমাত্রা অর্জন ও বিশ্বে তৈরি পোশাক খাতের তীব্র প্রতিযোগিতা মোকাবিলার জন্য আরও বেশি সক্ষমতা অর্জনের জন্য মনোযোগ দিতে হবে।

রেড কার্পেট আয়োজিত এই এক্সপো চলবে ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত। চায়না টেক্সটাইল মেশিনারি অ্যাসোসিয়েশন এই প্রদর্শনীর কৌশলগত পার্টনার হিসেবে রয়েছে। মেলায় বাংলাদেশ ছাড়াও বিশ্বের ১২টি দেশের প্রায় ১৮০টি স্টল তাদের পণ্য ও প্রযুক্তি নিয়ে অংশগ্রহণ করেছে। অংশগ্রহণকারী দেশগুলো হলো বাংলাদেশ, চীন, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, জাপান, কোরিয়া, শ্রীলঙ্কা, তুরস্ক ও যুক্তরাষ্ট্র।

Pin It