কলম্বোয় চাপে শ্রীলঙ্কা

লেগ স্পিনে লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের ভুগিয়েছেন ক্রিমার। অধিনায়ক সহায়তা পেয়েছেন ডোনাল্ড টিরিপানো ও শন উইলিয়ামসের। সঙ্গে ছিল দারুণ তৎপর ফিল্ডিং।দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৭ উইকেটে ২৯৩ রান। আসেলা গুনারত্নে ২৪ ও রঙ্গনা হেরাথ ৫ রানে ব্যাট করছেন। এখনও ৬৩ রানে পিছিয়ে স্বাগতিকরা। লিড নিতে ক্রিজে থাকা এই দুই ব্যাটসম্যানই শ্রীলঙ্কার বড় ভরসা।

দিনের প্রথম সেশনে কোনো উইকেট হারায়নি শ্রীলঙ্কা। দিমুথ করুনারত্নে-উপুল থারাঙ্গা নতুন বল সামাল দেন সহজেই। ছন্দপতন ঘটে দ্বিতীয় সেশনের শুরুতে। টিরিপানোর বলে স্লিপে করুনারত্নের দারুণ এক ক্যাচ নেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা।

৮৪ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙার পর খানিক ছন্দপতন। দুই অঙ্কে গিয়েই ক্রিমারের বলে উইকেটরক্ষক রেজিস চাকাভাকে ক্যাচ দেন কুসল মেন্ডিস। দুর্ভাগ্যজনক রান আউটে শেষ হয় উপুল থারাঙ্গার ১০টি চার আর একটি ছক্কায় গড়া ৭১ রানের ইনিংস।

দিনেশ চান্দিমাল ড্রাইভ খেলার সময় একটু এগিয়ে যাওয়া নন স্ট্রাইকার থারাঙ্গা সময় মতো জায়গায় ফিরতে পারেননি। টিরিপানোর হাতে ছুঁয়ে স্টাম্পে লাগলে ফিরে যেতে হয় তাকে।

৩২ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারানো শ্রীলঙ্কা প্রতিরোধ গড়ে বর্তমান আর সাবেক দুই অধিনায়কের ব্যাটে। অধিনায়ক হিসেবে নিজের প্রথম ইনিংসে অর্ধশতক পাওয়া চান্দিমাল অলরাউন্ডার ম্যাথিউসের সঙ্গে জুটি বেধে তুলেন ৯৬ রান।

৫৫ রান করা অধিনায়ককে ফিরিয়ে প্রতিরোধ ভাঙেন ক্রিমার। পরে বোল্ড করেন নিরোশান ডিকভেলাকে। মাঝে উইলিয়ামসের বলে মাসাকাদজার চমৎকার এক ক্যাচে ফিরে যান ম্যাথিউস।

২৬ রানের মধ্যে দুই থিতু ব্যাটসম্যানের সঙ্গে ডিকভেলাকে হারিয়ে বিপদে পড়া শ্রীলঙ্কাকে এগিয়ে নিচ্ছেন গুনারত্নে। হ্যামস্ট্রিংয়ে টান লাগার পরও লিড এনে দিতে লড়ছেন এই অলরাউন্ডার। দিনের শেষ দিকে টারিসাই মুসাকান্দার দারুণ ফিল্ডিংয়ে দিলরুয়ান পেরেরার রান আউটে খানিকটা হলেও এগিয়ে গেছে জিম্বাবুয়ে।

১০০ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন ক্রিমার। একটি করে উইকেট পেয়েছেন উইলিয়ামস ও টিরিপানো।

এর আগে শনিবার আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে ৮ উইকেটে ৩৪৪ রান নিয়ে দিন শুরু করে জিম্বাবুয়ে। এদিন মাত্র ৪.৪ ওভারে ১২ রান যোগ করেই গুটিয়ে যায় অতিথিদের ইনিংস।

১০ নম্বরে নেমে টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানের মতো খেলা টিরিপানোকে আউট করে দিনের প্রথম সাফল্য এনে দেন হেরাথ। এই উইকেট নিয়ে ৩০তম বারের মতো টেস্টে পাঁচ উইকেট নিলেন বাঁহাতি স্পিনার।

ক্রেইগ আরভিনকে ফিরিয়ে লাহিরু কুমারা ৩৫৬ রানে থামিয়ে দেন জিম্বাবুয়েকে। ১৫১ রান নিয়ে দিন শুরু করা আরভিন আউট হন ১৬০ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

জিম্বাবুয়ে ১ম ইনিংস: ৯৪.৪ ওভারে ৩৫৬ (মাসাকাদজা ১৯, চাকাভা ১২, মুসাকান্দা ৬, আরভিন ১৬০, উইলিয়ামস ২২, রাজা ৩৬, মুর ১৯, ওয়ালার ৩৬, ক্রিমার ১৩, টিরিপানো ২৭, পোফু ০*; লাকমল ০/৫৮, কুমারা ২/৬৮, হেরাথ ১১৬/৫, পেরেরা ১/৮৬, গুনারত্নে ২/২৮)

শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংস: ৮৩ ওভারে ২৯৩/৭ (করুনারত্নে ২৫, থারাঙ্গা ৭১, মেন্ডিস ১১, চান্দিমাল ৫৫, ম্যাথিউস ৪১, ডিকভেলা ৬, পেরেরা ৩৩, গুনারত্নে ২৪*, হেরাথ ৫*; পোফু ০/৩৭, টিরিপানো ১/৩৮, রাজা ০/৬০, ক্রিমার ৩/১০০, ওয়ালার ০/২, উইলিয়ামস ১/৩৪)

Pin It